এই একটি কারনে মুস্তাফিজকে দলে রেখে দিবে হায়দারাবাদ

অাগামী মাসের শেষের সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হবে ইন্ডিয়া প্রিমিয়ার লিগ (অাইপিএল) এর একাদশ তম অাসরে প্লেয়ার ড্রফট। ইন্ডিয়া প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) এর গভর্নিং কমিটির নতুন নিয়মে প্রতিটি দল মোট ৫ জন (২ বিদেশি এবং ৩ দেশি) ক্রিকেটার ধরে রাখতে পারবে। অার তাই নতুন এই নিয়মে বিপাকে পড়েছে প্রতিটি দল।

অাইপিএলে বাংলাদেশের হয়ে গত বছর সানরাইজ হায়দারাবাদে মোস্তাফিজ এবং কলকাতায় সাকিব খেলেছেন তবে এবার সাকিবকে কলকাতা ছেড়ে দেবে এটা একপ্রকার নিশ্চিত। সাকিবের পরিবর্তে শুনিল নারাইন, এন্ডি রাসেল অথবা ক্রিস লিনের মধ্যে যেকনো দুইজনকে ধরে রাখবে কলকাতা।

তাহলে মোস্তাফিজের কি হবে? হায়দারাবাদ কি রাখবে মোস্তাফিজকে। চেনা ফর্মে নেই মুস্তাফিজুর রহমান। কাটার স্লোয়ার ইয়র্কারগুলো আর আগের মতো খুনে নয়। প্রতিপক্ষের যম বলে খ্যাত মুস্তাফিজ এখন অনেকটা নখদন্তহীন বাঘ। আর তাই আগামী আইপিএলে মুস্তাফিজকে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ?

তবে মোস্তাফিজের পরিবর্তে কাকে নিয়ে হায়দারাবাদ। অনেকের প্রশ্ন অাফগানিস্থানের স্পিনার রাশিদ খানকে রেখে দেবে হায়দারাবাদ। তবে মোস্তাফিজকে ও রেখে দেওয়ার সম্ভাব না রয়েছে অনেক। যদি কনো পেস বোলারকে রাখতে হয় তাহলে মোস্তাফিজকে ছাড়া অার কনো উপায় নেই হায়দারাবাদের সামনে।

পেসার হিসাবে ভারতের ভুবনেশ্বর কুমারকে রেখে দিয়েছে হায়দারাবাদ। দলের অারেক গুরুপ্তপূন পেসার অশিস নেহেরা অবসরে। বাকি এখন শুধু মোস্তাফিজ। এছাড়া অাইপিএলের নবম অাসরে হায়দারাবাদকে চ্যাম্পিয়ন করার অন্যতম কারিগর তিনি।

সে বছর দারুন পারফরমেন্স করেছিলেন মোস্তাফিজ। সে বছর সর্বচ্চো উইকেট সংগ্রহকের তালিকায় ৫ নম্বারে ছিলেন মোস্তাফিজ। ১৬ ম্যাচে ১৭ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। ৬.৯০ গড় ছিলো তার। তবে গত বছর মোস্তাফিজের পরিবর্তে খেলা রাশিদ খানও যে ভালো বোলিং করেছিলো মোস্তাফিজের থেকে ভালো বোলিং করেছিলো সেটা কিন্ত না।

১৪ ম্যাচে ১৭ উইকেট নিয়েছিলো রাশিদ। গড় ৬.৬৩। অার তাই বোলার হিসাবে রাশিদ খানের সাথেই তাকবে ফিজ। এছাড়া অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার, উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান শিখর ধাওয়ান এবং ফাস্ট বোলার ভুবনেশ্বর কুমারকে নিশ্চিত করেছে হায়দারাবাদ।