ত্রিদেশী সিরিজে মাশরাফির পর দ্বিতীয় পেস বোলার হিসাবে ইতিহাসের সামনে দাড়িয়ে রুবেল হোসেন

২০০৯ সালে ১৪ জানুয়ারি শ্রীংলঙ্কা বিপক্ষে অভিষেক হয় বাংলাদেশ ক্রিকেটের অন্যতম সফল পেসার রুবেল হোসেনের। অার সেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই নিজের সর্বকালের সেরা ইতিহাসের সামনে দাড়িয়ে তিনি। মাশরাফির পর রুবেলই বাংলাদেশ ক্রিকেটের দ্বিতীয় সফল বোলার। এমন কি বাংলাদেশের হয়ে একাধিক ম্যাচ তিনি জিতিয়েছেন। বিশেষ করে ঘরের মাঠে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ৩ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ তে জয়ের অন্যতম ক্রিকেটার তিনি। সেই সিরিজে করেছিলেন হ্যাটট্রিক।

এ ছাড়া ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার শেষের ওভারেই ঐতিহাসিক জয় পায় বাংলাদেশ। ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে থাকা রুবেল হোসেন দাড়িয়ে অারো একটি ইতিহাসের সামনে। বাংলাদেশের দ্বিতীয় পেস বোলার হিসাবে ওয়ানডে ক্রিকেটে ১০০ উইকেটের সামনে দাড়িয়ে রুবেল হোসেন। রুবেলের অাগে ৪ জন বোলার ১০০ উইকেটের মালিক হলেও সেই তালিকায় পেসার হিসাবে অাছেন শুধু ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

রুবেল হোসেন ওয়ানডেতে এখন পয়ন্ত মোট ৮০ টি ম্যাচ খেলেছেন। এর মধ্যে উইকেট নিয়েছেন ৯৮ টি। ৫ বার নিয়েছেন ৪ উইকেট এবং ১ বার নিয়েছেন ৫ উইকেট। তার সর্বচ্চো ২৬ রানে ৬ উইকেট।

সামনে ত্রিদেশী সিরিজে ৪-৫ টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। অার ঐ ৪-৫ ম্যাচে ২ উইকেট পেলেই পঞ্চম বোলার এবং দ্বিতীয় পেস বোলার হিসাবে ১০০ উইকেটের মালিক হবেন তিনি। এর অাগে মোট ৪ জন ক্রিকেটার ১০০+ বেশি উইকেট নিয়েছেন। এদের মধ্যে মাশরাফি ১৮০ ম্যাচে ২৩১ উইকেট। সাকিব ১৮০ ম্যাচে ২২৬ উইকেট। অাব্দুর রাজ্জাক ১৫৩ ম্যাচে ২০৭ এবং মোহাম্মদ রফিক ১২৩ ম্যাচে ১১৯ উইকেট নিয়েছেন।